প্রেমিক অন্য মেয়েকে বিয়ে করায় কিশোরীর আত্মহত্যা

ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) সংবাদদাতা: বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রেমিকের গোপনে বিয়ে করার খবর পেয়ে চিরকুট লিখে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে এক কিশোরী। আজ রবিবার কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার শিমুলবাড়ী ইউনিয়নের তালুকশিমুলবাড়ী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার শিমুলবাড়ী ইউনিয়নের তালুক-শিমুলবাড়ী এলাকার মৃত আমান উদ্দিনের মেয়ে শিমুলবাড়ী দাখিল মাদ্রাসার দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থী মমতা মিতুর (১৬) সঙ্গে একই এলাকার ভাণ্ডার মকু মিয়ার ছেলে অনার্স পড়ুয়া রাজু মিয়ার (২৩) প্রায় এক বছর ধরে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। গত শনিবার গোপনে অন্যত্র বিয়ে করে রাজু। রবিবার বিয়ে বাড়িতে আত্মীয়-স্বজনদের আপ্যায়নসহ গান বাজিয়ে আনন্দ চলছিল। সেটা শুনতে পেয়ে রবিবার বিকেলে ঘরের ভিতর গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে ওই কিশোরী।

মরদেহের পাশে একটি চিরকুট পাওয়া গেছে। চিরকুটে লেখা, ‘আমি মমতা মিতু ,আমি রাজুকে খুব ভাল বাসি, রাজুর জন্য আত্মহত্যা করলাম। কারণ আমি ও রাজু দুজনকে খুব ভাল বাসতাম। কিন্তু রাজুর মা-বাবা আমাদের সমর্পকটা মানতে চান না। তাই রাজুর বিয়ে দিয়েছে। আজ ওর বৌ-ভাত, আমি এটা মানতে পারছিনা। তাই আমি এই পৃথিবী ছাড়লাম। কিন্তু এই শাস্তি আমি একাই ভোগ করছি না। আমি চাই আমাদের এই সমর্পকটার মাঝে যারা বাঁধা ছিল,তারা আইনি শাস্তি পায়। ইতি মিতু—।’

স্থানীয় মিলন মিয়া ও আশরাফুল ইসলামসহ একাধিক ব্যক্তি জানান, মেয়েটির বাবা নেই। এই এতিম মেয়েটার সঙ্গে রাজু অবিচার করেছে।

এ প্রসঙ্গে ফুলবাড়ী থানার ওসি (তদন্ত) সারওয়ার পারভেজ বলেন, সন্ধ্যায় ঘটনাস্থলে গিয়ে কিশোরীর মরদেহ থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। অভিযোগের প্রক্রিয়া চলছে। যে চিরকুট পাওয়া গেছে সেটা এক্সপার্ট দিয়ে পরীক্ষা করার পর নিশ্চিত হওয়া যাবে। এটা তারই লেখা কিনা।

এই ধরনের আরো খবর