কোন দিন ঢাকার কোন রাস্তায় যাবেন রাষ্ট্রপ্রধানরা

মশাল ডেস্ক: রাজধানীবাসীকে ১৭ মার্চ থে‌কে ২৬ মার্চ ১০ দিন চলাচল সীমিত রাখার অনুরোধ জানিয়েছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন অনুষ্ঠানে বিদেশি রাষ্ট্রপ্রধান ও অতিথিদের নিরাপত্তার স্বার্থে সংস্থাটির এই আহ্বান।

বিদেশি ভিভিআইপি অতিথিদের আগমন এবং আয়োজিত অনুষ্ঠান নির্বিঘ্ন করতে রাজধানীজুড়ে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা বলয় গড়ে তুলেছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী। অতিথিদের চলাচলের সড়ক, অনুষ্ঠানস্থল ও থাকার জায়গায় কয়েক স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকছে। ঢাকা মহানগরীর যেসব রাস্তা দিয়ে যখন তারা আসা-যাওয়া করবেন সেগুলোর ফুটপাত ও ফুটওভার ব্রিজে কেউ চলাচল করতে পারবেন না।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে ‘মুজিব চিরন্তন’ প্রতিপাদ্যে ১০ দিনব্যাপী বিশেষ অনুষ্ঠান চলবে ২৬ মার্চ পর্যন্ত। এর মধ্যে ১৭, ২২ এবং ২৬ মার্চের অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ এবং ১৭, ১৯, ২২, ২৪ এবং ২৬ মার্চের অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপস্থিত থাকবেন।

১৭ মার্চের অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে মালদ্বীপের রাষ্ট্রপতি ইব্রাহিম মোহামেদ সলিহ, ১৯ মার্চ শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসে, ২২ মার্চ নেপালের প্রেসিডেন্ট বিদ্যা দেবী ভান্ডারী, ২৪ মার্চ ভুটানের প্রধানমন্ত্রী লোটে শেরিং এবং ২৬ মার্চের অনুষ্ঠানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি উপস্থিত থাকবেন।

জেনে নিন রাষ্ট্রপ্রধানদের যাতায়াতের সময়সূচি

২০ মার্চ

শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট বিকাল ৫টা ১০ মিনিটে বঙ্গভবন থেকে বেরিয়ে বিকাল ৫টা ৩৫ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে যাবেন।

২২ মার্চ

রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদ সকাল ৯টা ৪০ মিনিটে রওনা দিয়ে সকাল ১০টায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে যাবেন। এরপর আবার তিনি বঙ্গভবনে ফিরবেন।

নেপালের প্রেসিডেন্ট সকাল সাড়ে ১১টায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে দুপুর ১২টা ১০ মিনিটে হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে পৌঁছাবেন। এরপর বিকাল ৩টা ৪৫ মিনিটে হোটেল থেকে বেরিয়ে ৩টা ৫৫ মিনিটে জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে যাবেন তিনি।

রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদ বিকাল ৪টা ১০ মিনিটে বঙ্গভবন থেকে বিকাল ৪টা ২৫ মিনিটে জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে যাবেন।

নেপালের প্রেসিডেন্ট সন্ধ্যা ৬টা ৩৫ মিনিটে জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ড থেকে রওনা দিয়ে হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে ফিরবেন।

২৩ মার্চ

হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টাল থেকে দুপুর ২টায় বেরিয়ে দুপুর ২টা ২০ মিনিটে বারিধারায় যাবেন নেপালের প্রেসিডেন্ট।

২৪ মার্চ

ভুটানের প্রেসিডেন্ট দুপুর ২টা ৫ মিনিটে হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টাল থেকে বেরিয়ে দুপুর ২টা ১৫ মিনিটে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে যাবেন।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে বিকাল ৩টা ৪০ মিনিটে রওনা দিয়ে বিকাল ৪টায় বঙ্গভবনে পৌঁছাবেন ভুটানের প্রেসিডেন্ট।

ভুটানের প্রেসিডেন্ট বিকাল ৪টা ৪০ মিনিটে বঙ্গভবন থেকে বেরিয়ে বিকাল ৫টায় জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে যাবেন।

২৫ মার্চ

হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টাল থেকে ভুটানের প্রেসিডেন্ট সকাল ৮টায় রওনা দিয়ে সকাল ৮টা ২৫ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে যাবেন।

২৭ মার্চ

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সন্ধ্যা ৬টা ১৫ মিনিটে বঙ্গভবন থেকে বেরিয়ে সন্ধ্যা ৬টা ৩৫ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে যাবেন।

এই ধরনের আরো খবর