আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে ষাট হাজার টাকার খড় কোটা

নরসিংদী প্রতিনিধি: নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলা চর আড়ালিয়া ইউনিয়ন ৩নং ওর্য়াডের বাঘাইকান্দি গ্রামের বাসিন্দা মোঃ আসাদ বেপারি প্রায় ষাট হাজার টাকার খড় কোটায় আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছেন কে বা কারা।

সোমবার (১২ জুলাই) দুপুর ১ টার দিকে কে বা কারা বাড়ির পিছনে থাকা খড়কোটা পাড়ায় আগুন লাগিয়ে দিয়ে চলে যায়। ধাওয় ধাওয় করে আগুন জ্বলতে থাকলে পাশের বাড়ির শাহজালাল (২০) দেখতে পান। তখন সে চিৎকার করে সবাইকে ডাকতে থাকেন। তার চিৎকার শুনে বাড়িতে থাকা সবায় এসে আগুন নিবাতে চেষ্টা করেন। কিন্তু দীর্ঘ ৬ ঘন্টা চেষ্টা করেও আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে ব্যর্থ হয়। এতক্ষনে আসাদ বেপারি ষাট হাজার টাকা খড় কোটা একে বারে পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

এই ঘটনা চর আড়ালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ হাসানুজ্জামান সরকার ঘটনা স্থল পরিদর্শনে করতে এসে বলেন, পূর্ব এমন ঘটনা আর কোনদিন ঘটেনি। যারা এসব ঘটনা ঘটিয়েছে,
সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত অপরাধীদের নাম বের করে তাদের উপযুক্ত শাস্তি আওতায় আনা হবে। যাতে করে ভবিষ্যতে
আর এমন ঘটনা ঘটাতে আর কেউ সাহস না পায়।

ঘটনা পরিদর্শনে এসে স্হানীয় ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য মোঃ হায়দার আলী মেম্বার এবং আনোয়ার মেম্বার বলেন এত বড় দুঃসাহস যারা শান্তি পরিবেশকে অশান্তি করতে চাই। অবশ্য প্রকৃত আসামিের কঠোর বিচার হবে।

এসময় এলাকাবাসি দাবি করেন আমরা এর সুষ্ঠু বিচার চাই। যাতে করে আর এমন ঘটনা কোনদিন না ঘটে। এই ঘটনার পরে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার জানায় কে বা কারা দুপুর আমাদের খড় কোটায় আগুন লাগিয়ে দেয়। তবে আমাদের বিশ্বাস পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এই ঘটনা ঘটতে পারে বলে জানান ক্ষতিগ্রস্ত আসাদ বেপারির। তিনি বলেন আমি গত একমাস আগে ষাট হাজার টাকা ব্যয় করে বিভিন্ন জায়গা থেকে খড় কোটা ক্রয় করি। যারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে তাদের বিচার দাবি করি।

এই ধরনের আরো খবর